কক্সবাজারে বিরল প্রজাতির পোকার সন্ধান, খেয়ে ফেলছে পাতা

কৃষি কর্মকর্তারা বলছেন, দেখতে পঙ্গপালের মতো হলেও পোকাটি পঙ্গপাল নয়। এ পোকাটি গাছের সব পাতা নিমেষেই শেষ করতে পারে। এ ধরনের পোকা বাংলাদেশে আর দেখা যায়নি।

গত ১৮ এপ্রিল টেকনাফ উপজেলার একটি পরিত্যক্ত পোল্ট্রি ফার্মে এ পোকার সন্ধান মেলে। কয়েকটি গাছে এ পোকাটি আক্রমণ করে। পরে কৃষি কর্মকর্তারা গিয়ে বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করে রিপকর্ড কিটনাশক ব্যবহার করে পোকাগুলো মেরে ফেলে।

টেকনাফ উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সোহেল সিকদার তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি ভিডিও আপলোড করেন। ভিডিওতে দেখা যায়, একটি গাছে অনেকগুলো পোকা গাছের পাতা খেয়ে ফেলছে নিমেষেই।

স্থানীয়রা জানান, টেকনাফে বিভিন্ন এলাকায় বাগানের বিভিন্ন ফলজ ও বড় বড় গাছের পাতাগুলোতে হাজার হাজার পোকা বসছে এবং খেয়ে ফেলছে পাতা। দিনের বেলায় এই পোকার আক্রমণ কম দেখা গেলেও রাতে আক্রমণের মাত্রা বেড়ে যায়।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর চট্টগ্রাম অঞ্চলের উপ-পরিচালক মো. নাসির উদ্দিন বাংলানিউজকে বলেন, দেখতে পঙ্গপালের মতো হলেও পোকাটি পঙ্গপাল নয়। এ ধরনের পোকা বাংলাদেশে আর দেখা যায়নি।

তিনি বলেন, টেকনাফে একটি ফার্মে এ পোকার সন্ধান পাওয়ার পর স্থানীয় কৃষি কর্মকর্তারা এটি পর্যবেক্ষণ করেছেন। একটি পূর্ণ বয়স্ক পোকা গাছেই ডিম পাড়ে এবং অনেকগুলো বাচ্চা ফুটাতে পারে।

‘বেশ কয়েকটি গাছে বসা এ পোকাগুলোকে রিপকর্ড কিটনাশক ছিটিয়ে মেরে ফেলা হয়েছে। হঠাৎ এ ধরনের পোকার আক্রমণের বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে’ যোগ করেন উপ-পরিচালক মো. নাসির উদ্দিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *